কলকাতা২৪লাইভ(Kolkata24live): আগামী তিন মাসের জন্য দল থেকে সাসপেন্ড হলেন সিপিএমের রাজ্যসভার সাংসদ ঋত্যব্রত বন্দ্যোপাধ্যায়। বিলাসবহুল জীবনযাপনের জন্য এই শাস্তি পেলেন সিপিএমের রাজ্যসভার সাংসদ। রাজ্য কমিটির বৈঠকে একথা জানিয়েছেন দলের রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র।

বিতর্কের সূত্রপাত শিলিগুড়ির ডার্বি ম্যাচের দিন। সেখানে নিজের একটি ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছিলেন পার্টির এক সদস্য। ছবিতে দেখা যায়, ঋতব্রতর হাতে বহুমূল্যের বিদেশি ঘড়ি, পকেটে দামী পেন শোভা পাচ্ছে৷ একজন বামপন্থী ছাত্রনেতার এই ধরনের ঘড়ি ও পেন ব্যবহার করা উচিত কি না, তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন পার্টির ওই সদস্য৷ অভিযোগ, এরপরই ওই পার্টি সদস্যের অফিসে একটি মেল পাঠিয়ে তাঁর চাকরি কেড়ে নেওয়ার হুঁশিয়ারি দেন ঋতব্রত৷ তারপরই সোশ্যাল মিডিয়ায় এই বিষয়ে বিতর্কের ঝড় ওঠে।  নড়চড়ে বসে সিপিএমের কর্তা ব্যক্তিরা।

তারা জানিয়ে দেন, ঋতব্রত বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে ওঠা যাবতীয় অভিযোগ খতিয়ে দেখতে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিতে রয়েছেন মহম্মদ সেলিম, মৃদুল দে ও মদন ঘোষ। আগামী ২ আগস্টের মধ্যে ওই কমিটি রিপোর্ট জমা দেবে।  যতদিন না পর্যন্ত রিপোর্ট পাওয়া যাচ্ছে ততদিন সাসপেন্ড থাকবেন তিনি।  

জানা গিয়েছে, ঋতব্রতর বিলাসবহুল জীবনযাপন ও বেশ কিছু দলবিরোধী কাজকর্ম নিয়ে ইদানীংকালে জেলাগুলি থেকেও একাধিক অভিযোগ এসেছে৷ ঋতব্রতর ব্যবহার নিয়েও আলিমুদ্দিনে একাধিক অভিযোগ জমা পড়েছে৷ তারপরই এই ব্যবস্থা।